SEO কি ? ৫ টি উপায়ে (বেসিক সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান)

সুপ্রিও পাঠক বন্ধুরা আসসালামুআলাইকুম, কেমন আছেন সবাই ? আশা করি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছেন, আমিও আপনাদের দোয়াই আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। চলে এলাম নতুন কিছু নিয়ে। বন্ধুরা আজ  আমি আপনাদের সাথে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়ে আলোচনা করব। যেটা আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। যেকোনো ওয়েবসাইটকে কিভাবে গুগল সার্চ ইঞ্জিন এ রাঙ্ক করাই। এটা আপনার ওয়েবসাইট অথবা যেকোনো কিছু গুগল এ রাঙ্ক করাতে সাহায্য করবে। অর্থাৎ SEO (সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান)। যেটা খুবই উপকারী এবং দরকারি। চলুন আমরা কথা না বাড়িয়ে মূল কথাই আসি।

সার্চ ইঞ্জিন কি  

এসইও আপনার ওয়েবসাইটকে কিছু সুনির্দিষ্ট কিওয়ার্ড এর বিপরীতে সার্চ ইঞ্জিনকে সাহায্য করবে যখন উক্ত কিওয়ার্ড ব্যবহার করে মানুষ কোন তথ্য সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করবে। সার্চ ইঞ্জিন হলো বিশাল একটি তথ্য ভান্ডার যার ভেতরে সকল ওয়েবসাইটের তথ্য ইনডেক্স করা থাকে। এটা আমরা সবাই জানি। ইন্টারনেটে মানুষ কোন তথ্য খুজে পেতে সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে। বর্তমান দুনিয়ায় সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে একক আধিপত্য বিস্তার করে আছে গুগল। তারপর আছে বিং। গুগল রাঙ্কিং ফ্যাক্টর  সহায়তা পেতে হলে এসইও জানতে হবে।

SEO কি এবং কিভাবে করতে হবে

আমরা জানি মানুষ ইন্টারনেট এ অনেক বেশি সংযুক্ত। সেজন্য অনলাইন ভিত্তিক বাণিজ্য এখন খুব লাভজনক। এই অনলাইন বিজনেস করতে গেলে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান বা এসইও কে অবজ্ঞা করার অবকাশ নেই। SEO কি জানতে হবে সবার আগে। অনলাইন ভিত্তিক একটি ওয়েবসাইট খুলে আপনি আপনার ফ্যাশন আইটেম/প্রোডাক্ট গুলো ওয়েবসাইটে দিলেন। কাস্টোমার অনলাইনে সার্চ করে আপনার ওয়েবসাইট তখনি পাবে যখন সার্চ ইঞ্জিন জানবে ঐ প্রোডাক্ট আপনার ওয়েবসাইটে আছে।

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান কত প্রকার হয়

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান ২ প্রকার।

১। হোয়াইট হ্যাট এসইও বা লিগ্যাল এসইও

যখন সার্চ ইঞ্জিনের সকল শর্ত মেনে সঠিকভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান বা এসইও করা হয় তখন তাকে হোয়াইট হ্যাট এসইও বলে।

২। ব্ল্যাক হ্যাট এসইও বা ইলিগ্যাল এসইও

সার্চ ইঞ্জিনের শর্তের বাইরে গিয়ে ইলিগ্যাল পথে যখন সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান বা এসইও প্র্যাকটিস করা হয় তখন তাকে ব্ল্যাক হ্যাট এসইও বলে।

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান বা SEO কি

বেসিক সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর জন্যে নিচের ধাপ গুলো ফলো করুনঃ

১। আপনার ওয়েবসাইট কাঠামো  

SEO কি জানার পর, এসইও প্র্যাকটিস শুরুর আগে ওয়েবসাইট কাঠামো ঠিক করে নিন।

এসইও ফ্রেন্ডলি (Content Management System-CMS) প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন যেমন ওয়ার্ডপ্রেস।

ওয়ার্ডপ্রেস সেটাপের পর ইউনিক কিছু কন্টেন্ট দিন। কন্টেন্ট বা আর্টিকেল লেখার সময় কিছু জিনিস মাথায় রাখতে হবেঃ

  • কিওয়ার্ড রিসার্চ

    কিওয়ার্ড এসইও এর মূলমন্ত্র। আপনার কিওয়ার্ড রিসার্চ ভালো নাহলে কখনোই এসইও রেজাল্ট পাবেনা। কিওয়ার্ড রিসার্চ এর জন্যে গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার টুল ব্যবহার করতে পারেন। এটি একদম ফ্রি।

  • লেখা কপি হওয়া যাবেনা- আপনার আর্টিকেল ইউনিক হতে হবে। কপি করা আর্টিকেল হলে গুগল পেনাল্টি দিবে। সাইট তো র‍্যাঙ্ক করবেই না বরং আজীবনের জন্যে নিষিদ্ধ হতে পারে আপনার সাইট।
  • হেডার H1-H6 ব্যবহারঃ লেখার সময় H1 হেডার একবার ই ব্যবহার করুন।
  • আর্টিকেল এর মুল বিষয় H1 এ দিন।
  • ইমেজ Alt Tag: ইমেজ এ ক্যাপশন না দিলেও Alt Tag দিতে ভুলবেন না। সার্চ ইঞ্জিনের বট বা রোবট ইমেজ এর Alt Tag রিড করে অন্য কিছু না। ছবি লোড হতে সময় লাগলে Alt Tag এর টেক্সট দেখা যায় যার ফলে ইউজার ধারণা পায় ছবিটা কিসের।
  • কপিরাইট আইটেম পরিহার ঃ মাল্টিমিডিয়া ব্যবহারের ক্ষেত্রে কপিরাইট আইটেম এড়িয়ে চলুন। লোগো সহ কোন ছবি দেয়া যাবেনা। যদি দেন তাহলে তার কপিরাইট উল্লেখ করতে হবে।
  • আর্টিকেল সাইজঃএই বিষয়টা একটু চিন্তা করে নিবেন। রিসার্চ করবেন আপনার কম্পেটিটর একই বিষয়ে কত শব্দের আর্টিকেল লিখছে। যদি আপনার কম্পেটিটর এর আর্টিকেল ৮০০ শব্দের হয়, আপনি ১০০০ শব্দের আর্টিকেল প্রকাশ করবেন।

আর্টিকেল লেখা হলে চেক করে পাবলিশ করুন। এইবার সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার আর্টিকেল শেয়ার করুন।ফেসবুক, গুগল+, টুইটার, পিন্টারেস্ট ইত্যাদি যত বেশি শেয়ার দিতে পারেন। মনে রাখবেন সোশ্যাল শেয়ার সার্চ ইঞ্জিন এ বিশেষ প্রাধান্য পায়। গুগল র‍্যাংকিং ফ্যাক্টর হিসেব মতে এটা বিরাট একটা অংশ।

২। সার্চ ইঞ্জিন কি পছন্দ করে জানতে হবে

সার্চ ইঞ্জিনের এলগরিদম সম্পর্কে একটু বুঝে নিতে হবে। SEO কি ? এটা জানতে হলে সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে খানিকটা জানা আবশ্যক।

গুগল, বিং বা ইয়ান্ডেক্স সার্চ ইঞ্জিন গুলো সাধারণত কিছু কমন জিনিস এর উপর নির্ভর করে সাইট র‍্যাঙ্ক করায়ঃ

  • কন্টেন্টঃ সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য কন্টেন্ট। আপনার কন্টেন্ট যদি ইউজারের সার্চ করা প্রশ্নের উত্তরের সাথে না মিলে সার্চ ইঞ্জিন তা দেখাবেনা। কন্টেন্ট এর বিষয়বস্তু ক্লিয়ারলি উপস্থাপন করতে হবে। লেখা গুছিয়ে লিখতে হবে। আর্টিকেল লেখার সময় মাথায় রাখতে হবে, এই লেখা মানুষের জন্যে, সার্চ ইঞ্জিনের রোবটের জন্যে না।
  • সাইট স্পীডঃ আপনার সাইট স্পীড ভালো হতে হবে নাহলে সার্চ ইঞ্জিন তা প্রাধান্য দিবেনা। সার্চ ইঞ্জিন দ্রুত লোড হওয়া সাইট গুলো কে প্রাধান্য দেয়।
  • ব্যাকলিংকঃ এসইও ভালো করতে হলে ভালো ব্যাকলিংক দরকার। আপনার লেখা ভালো হলে ভালো কোন সাইট আপনাকে ব্যাকলিংক দিবে যার ফলে সার্চ ইঞ্জিনের চোখে আপনার র‍্যাংক বাড়বে।
  • সাইট নেভিগেশনঃ আপনার সাইট ব্যবহার করা কতটা সহজ তার উপর আপনার সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন নির্ভর করে। সিম্পল ওয়েবসাইট সাথে ভালো কন্টেন্ট সহজেই এসইও তে ভালো করে

৩। সার্চ ইঞ্জিন কি অপছন্দ করে জানতে হবে

  • ঘন ঘন কিওয়ার্ডঃ বার বার কিওয়ার্ড ব্যবহার করা কিওয়ার্ড স্প্যাম এর মত। সার্চ ইঞ্জিন কিওয়ার্ড স্প্যাম পছন্দ করেনা।
  • ব্যাকলিংক ক্রয়ঃ ব্যাকলিংক কেনাবেচা সার্চ ইঞ্জিন পছন্দ করেনা। কারন আপনার তখনই ব্যাকলিংক কেনার প্রয়োজন হবে যখন আপনার কন্টেন্ট শক্তিশালী নয়।
  • বাজে সাইট নেভিগেশনঃ সাইটে বেশি অ্যাড ব্যবহার করা।
  • অপ্রাসঙ্গিক কথা বার বার বলা, মুল কথা না বলে ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে আর্টিকেল লম্বা করা।এইসব বাজে সাইট নেভিগেশনের মধ্যে পরে।

যখন সাইট নেভিগেশন খারাপ হয় তখন আপনার বাউন্স রেট বেড়ে যায়। ভিজিটর সাইটে এসেই বেরিয়ে যায়, যা সার্চ ইঞ্জিন অত্যন্ত অপছন্দ করে।

৪। মাল্টি চ্যানেল ব্যবহারঃ

এসইও আরো শক্তিশালী হবে যদি নিচের সোশ্যাল মিডিয়া গুলো ব্যবহার করেন।

  • ফেসবুক
  • টুইটার
  • লিংকডইন
  • পিন্টারেস্ট
  • ই-মেইল

৫। ইউআরএল কন্টেন্ট সাদৃশ্য

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান এর রেজাল্ট আর্টিকেল এর ইউআরএল এর উপর অনেকাংশে নির্ভর করে।

কন্টেন্ট এর মুল কিওয়ার্ড ইউআরএল এর ভিতরে থাকলে তা সার্চ ইঞ্জিনের বিশেষ সিগন্যাল দেয়। যার ফলে এসইও ভালো হয়।

যেমনঃ আপনার কন্টেন্ট ‘dog lover’ নিয়ে। এখন নিচের ২ টি ইউআরএল দেখুন

  1. https://www. ursite. com/dog-lover-bd
  2. https://www. ursite. com/category/animal/010117/dog-lover-bd

২টি ইউআরএল এর মধ্যে প্রথমটি সার্চ ইঞ্জিনের বেশি ইম্প্রেশন পাবে।

কারন ইউআরএল কন্টেন্ট এর সাথে বেশি সাদৃশ্য এবং হোম পেইজ থেকে নিকটে।

উপরিউক্ত ৫ টি ধাপ করে আপনার এসইও বেসিক পূরণ হবে।

 

আগামী দিনগুলি আমাদের সাথে থাকবেন এই আশা করি। সামনে আরও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আপনাদের সামনে তুলে ধরব সেই পর্যন্ত আমাদের সাথেই থাকুন।

কষ্ট করে পুরো পোস্ট পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Loading...
Scroll Up